এই ঈদকে রাঙ্গাতে পারেন রাঙ্গামাটির সৌন্দর্য্যে

বাংলাদেশের অন্যতম ঝুলন্ত ব্রীজ ‘রাঙ্গামাটি ঝুলন্ত ব্রীজ’ থেকে দৃষ্টিনন্দন কাপ্তাই লেক আপনাকে মুগ্ধতায় ভরিয়ে দেবে । ব্রীজ পার হয়ে উপরে উঠলে আরও চমৎকার ভিউ দেখতে পাবেন। আর পলওয়েল পার্কে গিয়ে লেকের সম্পূর্ণ ভিউ দেখতে পাবেন। সাথে বাতাসের শুনশান ও পানির ঢেউয়ের ধ্বনিও। যখন আপনি রাঙ্গামাটি এরিয়ায় ঢুকবেন তখন থেকে উচুঁ-নিচু পাহারের খেলা দেখতে দেখতে চোখ ব্যস্ত হয়ে পড়বে।আর দূরে তাকালে মনে হবে আকাশ ছুঁই ছুঁই পাহারগুলো যেন সাদা চাদরে ঢেকে আছে।

কিভাবে যাবেন :

ঢাকা থেকে রাত ১০:৩০ টায় ঢাকা – চট্টগ্রাম মেইল ট্রেনে করে চট্রগ্রাম, ভাড়া ১২০ টাকা।
সকাল ৭ টার ভিতর চট্রগ্রাম। ২০ টাকা খরচ করে নাস্তা সেরে নিন। তারপর চট্রগাম রেল স্টেশন থেকে অক্সিজেন বাস স্টান্ড চলে যান। সেই খান থেকে চট্টগ্রাম – রাঙ্গামাটি বাস ছাড়ে, ভাড়া ১২০ টাকা। (বাসের ছাদে উঠলে বেস্ট, ভাল ভিউ পাওয়া যায়) সকাল ১০:৩০ এর ভিতর রাঙ্গামাটির শহরে পৌছে যাবেন। বাস থেকে নেমে পর্যটক স্থান ঝুলন্ত ব্রীজ বলে সিএনজি রিজার্ভ করে নিবেন। ঝুলন্ত ব্রীজ,কাপ্তাই হ্রদ,ডিসি বাংলো,পলওয়েল পার্ক একত্রে বলে নিবেন। ভাড়া ২৫০ এর মতো চাইবে। দামাদামি করে কমাতেও পারবেন।
দুপুরের খাবার আপনি চাইলে সেখানে রেস্টুরেন্ট এ খেতে পারেন।
বিকাল ৫ টার আগে সব স্পট গুলো ঘুরে চলে আসুন আবার রাঙ্গামাটি শহরে।চট্টগাম যাওয়ার বাসে উঠে পড়ুন (ভাড়া :১২০ টাকা) পাহাড়ের বুকে সূর্য অস্ত দেখতে দেখতে চলে আসুন চট্রগাম বাস স্ট্যান্ড।
রাত ৮:৩০ র ভিতর চট্রগাম,, ৫০-৬০ টাকা খরচ করে রাতের খাবার সেরে ফেলুন। তারপর আবার রেল স্টেশন চলে আসুন,মেইল ট্রেন রাত ১০:৩০ এ ছাড়ে (ভাড়া ১২০ টাকা)।সকাল ৭ টায় ঢাকা ইনশাল্লাহ।

Source: BM ShakilTravelers of Bangladesh (ToB)

Share:

Leave a Comment

Shares