একদিনের ট্যুর নারায়ণগঞ্জ ভ্রমণ

আমরা অনেকেই দিনে যেয়ে দিনের আসার মত অনেক জায়গা খুজি ঘুরে বেড়ানোর জন্য। নারায়ণগঞ্জ ঢাকার কাছে এবং বেশ পরিচিত একটি যায়গা। একসাথে অনেক কিছু দেখার আছে।
জায়গা গুলো হল,
১। সোনারগাও লোক শিল্প জাদুঘর ,
২। পানাম সিটি,
৩। বাংলার তাজমহল,
৪। পিরামিড।
বাংলার তাজমহল ঃ
বিশ্বের প্রাচীন সপ্তাশ্চর্য আগ্রার তাজমহলের আদলে নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও উপজেলার পেরাব গ্রামে নির্মিত হয়েছে অনুপমশৈলীর স্থাপত্যে বিশ্বের ২য় বাংলার তাজমহল। বাংলার তাজমহল (Banglar Tajmahal) আগ্রার তাজমহলের মডেলেই গড়া হয়েছে। ঢাকা থেকে এর দূরত্ব মাত্র ৩৩ কিলোমিটার। তাজমহলের মূল ভবন স্বচ্ছ ও দামি পাথরে মোড়ানো। এর অভ্যন্তরে চলচ্চিত্র পরিচালক ও প্রযোজক আহসানউল্লা মনি ও তার স্ত্রী রাজিয়া দু’জনের কবরের স্থান সংরক্ষিত আছে। চার কোণে চারটি বড় মিনার, মাঝখানে মূল ভবন, সম্পূর্ণ টাইলস করা। সামনে পানির ফোয়ারা, চারদিকে ফুলের বাগান, দুই পাশে দর্শনার্থীদের বসার স্থান। এখানে রয়েছে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত রাজমনি ফিল্ম সিটি রেস্তোরাঁ, উন্নতমানের খাবার-দাবারের ব্যবস্থা। রয়েছে রাজমনি ফিল্ম সিটি স্টুডিও।

তাজমহলের কাছাকাছি পৃথিবীর সপ্তাশ্চর্যের অন্যতম মিসরের পিরামিডের আদলে গড়ে তোলা হয়েছে পিরামিড।
খোলার সময়সূচী ঃ
তাজমহল প্রতিদিন খোলা থাকে সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত।

পানাম নগর ঃ

পানাম নগর বা পানাম সিটি (Panam City) বাংলাদেশীদের কাছে “হারানো নগরী” হিসাবে সুপরিচিত। ঢাকার পার্শবর্তী নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও থানায় ঐতিহাসিক পানাম নগর অবস্থিত। ১৫ শতকে ঈশা খাঁ সোনারগাঁয়ে বাংলার প্রথম রাজধানী স্থাপন করেন। সোনারগাঁয়ের প্রায় ২০ বর্গকিলোমিটার এলাকাজুড়ে গড়ে উঠে এই নগরী।২০০৬ সালে ওয়ার্ল্ড মনুমেন্ট ফান্ডের তৈরি বিশ্বের ধ্বংসপ্রায় ১০০ টি ঐতিহাসিক স্থাপনার তালিকায় পানাম নগর স্থান পায়।

লোক ও কারুশিল্প জাদুঘর:

পানাম নগরী থেকে মাত্র এক কিলোমিটার দুরত্বে রয়েছে লোক ও কারুশিল্প জাদুঘর। লোক ও কারুশিল্প জাদুঘরের প্রবেশ পথে শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিনের একটি ভাস্কর্য রয়েছে। জাদুঘরে মোট ১১ টি গ্যালারিতে দুর্লভ ঐতিহ্যের নিদর্শন সংরক্ষিত রয়েছে। গ্যালারিগুলোতে নিপুণ কাঠ খোদাই করা জিনিস, মুখোশ, নৌকার মডেল, লোকজ বাদ্যযন্ত ও পোড়া মাটির নিদর্শন, জামদানি ও নকশিকাঁথা ইত্যাদি স্থান পেয়েছে।

কিভাবে যাবেন ঃ
গুলিস্তান থেকে সোনারগাঁও বাস যায়। নামতে হবে মোগরা পাড়া। আরো আগে নামা যায়। তবে আমি বলবো যে যারা যেতে যান তারা মদনপুর নামবেন। সেখান থেকে তাজমহল আর পিরামিড দেখে পরে চলে যান সোনারগাঁও আর পানামসিটি দেখতে।

টিকেট মূল্যঃ
তাজমহল আর পিরামিড এক সাথে ১৫০ টাকা। অনেক বেশী নিল। আগে এটা ১০০ টাকা ছিল।
তাজমহল দেখে একটু হেঁটেই সামনে গেলে বাংলার পিরামিড।
সোনারগাঁও লোক শিল্প জাদুঘর ৩০ টাকা। পানাম নগর ১৫ টাকা।

খরচ ঃ
খাওয়া খরচ যে যেমন খাবেন। আমরা পানাম নগর এর বাইরে একটা ভাতের হোটেলে খেয়েছিলাম। এখন যদি আমি খরচের হিসাব বলি তাহলে গাড়িভাড়া আর সব মিলিয়ে মনে হয়না ৭০০ টাকার বেশী যাবে।

[প্রতিটি ঘুরে বেড়ানোর যায়গা নিজের স্থানের মতই। তাই যতটা সম্ভব অপরিস্কার করা থেকে নিজেকে বিরত রাখবেন]

Source:

Share:

Leave a Comment

Shares