একদিনে পাথরঘাটা শহর ভ্রমণে যেভাবে যাবেন

প্রথমে সদরঘাট থেকে কাকচিরার লঞ্চে উঠবেন ভাড়া কেবিন নিলে ১৫০০টাকা, কেবিন নিলে কয়েকজন মিলে গেলে ভাড়াটা কম পড়বে। কেবিন ছাড়াও যাওয়া যায়। লঞ্চ ছাড়ে বিকাল ৪ টা থেকে, তাই বিকালেই রওনা করতে হবে। পৌছাবে পরেরদিন খুব সকালে ৪/৫ টার দিকে।

কাকচিরা ঘাট থেকে অটো করে চলে যাবেন পাথরঘাটা, ভাড়া নিবে ৪০/৫০টাকা।
সেখানে গিয়ে সকালের নাশতা টা সেরে ফেলতে পারবেন, ২০/৩০ টাকায়। সেখানে হোটেল আছে চাইলে ফ্রেশ হতে পারবেন।
তারপর হরিনঘাটার উদ্দেশ্যে রওনা দিবেন, আটো রিক্সা ভাড়া নিবে ১০০টাকা, সময় লাগবে ৩০/৪০ মিনিট। সেখানে পাবেন কাঠের ব্রিজ এবং ব্রিজটা সোজা সমুদ্রে চলে যায়। ভাগ্য ভালো থাকলে হরিন দেখতে পাবেন।
আমরা ট্রলার দিয়ে সমুদ্রে গিয়েছি কারন ব্রিজ দিয়ে গেলে বেশি সময় লাগতো + ব্রিজটার কিছু জায়গায় ভাঙা চিল। ট্রলার টা বেশ বড় চিল, ভাড়া ৪০০ ছিল (যাওয়া +আসার) সেখানে available ট্রলার পাবেন।
১০.৩০/১১ টার মধ্যে ঘুরাঘুরি শেষ করে বালেশ্বর নদীর উদ্দেশ্য রওনা দিবেন সেখানে ভাড়া লাগবে ১৫০টাকা
সেখানে ঘুরাঘুরি শেষ করে আবার পাথরঘাটা বাজারে চলে আসবেন। দুপুরের খাবার এখানের কোনো হোটেলে সেরে নিতে হবে।
তারপর চলে আসবেন কালমেঘা বাজার এ অটো ভাড়া ৩০/৪০ টাকা।
বিকালে নদীর পাড়টা অনেক বেশি সুন্দর হয়ে যায়। চাইলে নৌকাতে ও উঠতে পারবেন। কালমেঘা নদীর পাড়ে বিকেলে এবং সন্ধ্যায় সবচেয়ে সুন্দর দৃশ্য দেখতে পাবেন! আর এই নদীর নাম বিষখালী নদী। তারপর আবার চলে আসবেন কাকচিরা লঞ্চঘাটে।
লঞ্চ ছাড়ার সময় বিকাল ৪.৩০ মিন থেকে শুরু হয়।

বিঃ দ্রঃ পরিবেশের ক্ষতি হয় এমন কোন কিছু করবেন না, স্থানীয় মানুষদের সম্মান দিন, তাদের সাথে মিশুন, এলাকার ইতিহাস জানুন। আর যত্রতত্র ময়লা ফেলে আসবেন না। ঘুরেন দায়িত্ববোধের সাথে।

Source: Lamia Hasan‎ <Travelers of Bangladesh (ToB)

Share:

Leave a Comment

Shares