কাপ্তাই ভ্রমন : জনপ্রতি সাম্ভাব্য খরচ

শান্ত কোলাহল মুক্ত পরিবেশে যারা কিছুটা সময় কাটাতে চান তাদের জন্য নি:সন্দেহে কাপ্তাই একটি অাদর্শ জায়গা. তাই হাতে কিছু সময় থাকলে ঘুরে আসতে পারেন কাপ্তাই থেকে, ২ দিনে আমরা ২জন যে সকল জায়গা গুলো ঘুরেছি,

# জুম রেস্তোরা এন্ড পিকনিক স্পট
# কাপ্তাই কায়াক ক্লাবে কায়াকিং
শেখ রাসেল ইকো পার্ক
নেভী একাডেমী
কাপ্তাই ড্যাম
জেটি ঘাট ও মাছের আড়ৎ

# কাপ্তাই লেকে সাম্পান এ করে ভ্রমন
বিস্তারিত:
আমাদের যাত্রা শুরু হয় ঢাকার কলাবাগান হতে সৌদিয়া পরিবহনে নন এসি বাস ঢাকা টু কাপ্তাই ৫৫০ টাকা জনপ্রতি ভাড়া, পরের দিন সকাল ৮ টায় আমরা কাপ্তাই পৌছাই.
১ম দিন:- সকাল আটটায় আমরা কাপ্তাই না নেমে প্রায় ১০ কিলোমিটার আগেই নেমে যাই কাপ্তাই জুম রেস্তোরার সামনে, জুম রেস্তোরা ও পিকনিক স্পট বিজিবি পরিচালিত, জায়গাটি মারাত্নক সুন্দর আপনি না দেখলে বুঝতে পারবেন না টিকিট জনপ্রতি ২০ টাকা করে. থাকার জন্য তাদের তিনটি কটেজ আছে ভাড়া গুলো যথাক্রমে ১০০০, ১৫০০,২০০০ টাকা. আমরা ২ জন ১০০০টাকার রুম নিয়ে নেই থাকার জন্য, সকালে নাস্তা করে নিলাম কেক বিস্কিট আর চা দিয়ে ৭০ টাকায়. জুম রেস্তোরার ১০০ গজ সামনেই কাপ্তাই কায়াক ক্লাব এবং ফ্লোটিং প্যারাডাইস রেস্টুরেন্ট সেখানে খাবার এর অর্ডার করে নেমে গেলাম কায়াকিং করতে. কায়াকিং প্রতি ঘন্টা ২৫০ টাকা স্টুডেন্ট আইডি থাকলে ৫০ টাকা কম আমরা ১ ঘন্টা কায়াকিং করে ১১ টায় রুমে ব্যাক করে গোসল করে কিছুটা বিশ্রাম নিয়ে দুপুর ১ টায় খেতে চলে গেলাম ফ্লোটিং প্যারাডাইস এ
আমাদের খাবার প্যাকেজ মূল্য ছিল জনপ্রতি ১৬০ টাকা তাতে ছিল ভাত/ডাল/ডিম/আলুভর্তা/ বয়লার মুরগি ১ পিস খেয়ে এসে আমরা জুম রেস্তোরায় বসে কাপ্তাই লেকের সুন্দর ভিউ উপভোগ করলাম এবং বিকেলের দিকে ১৫ টাকা করে সিএনজিতে করে চলে গেলাম শেখ রাসেল এভিরিয়া ইকো পার্কে প্রবেশমূল্য জনপ্রতি ২৩ টাকা এইখানে ক্যাবল কার রাইড করা যায় জন প্রতি ২৩০ টাকা যাওয়া আসা মিলিয়ে প্রায় ১৬ মিনিট, সন্ধ্যায় আমরা ফিরে এলাম জুম রেস্তারার রাতে কটেজে ক্যান্টিনে বসে অন্ধকারাচ্ছন্ন কাপ্তাই এর অসাধারন ভিউ দেখলাম, চলে গেলাম ফ্লোটিং প্যারাডাইস এ রাতের খাবার খেয়ে নিলাম ১৬০ টাকা করে ফিরে এসে ঘুমিয়ে গেলাম
১ম দিনের খরচ– (দুইজনের)
ঢাকা টু কাপ্তাই গাড়ি ভাড়া: ১১০০ টাকা
কটেজে রুম ভাড়া:১০০০ টাকা
নাস্তা :৭০টাকা
কায়াকিং: ২০০ টাকা
সিএনজি:৬০ টাকা
দুপুর ও রাতের খাবার ৬৮০ টাকা
পার্কে এন্ট্রি ফি – ৪৬ টাকা
মোট:- ৩১৫৬ টাকা

২য় দিন:- সকাল আটটায় চেক আউট করে আমরা জনপ্রতি ২৫ টাকায় চলে গেলাম জেটি ঘাট, জুম রেস্তোরা থেকে জেটি ঘাট এর রাস্তার ভিউ অসাধারন
জেটি ঘাটে আমরা সকালের নাস্তা করি ২ জন ৬০ টাকা দিয়ে তারপর ছোট নৌকা তাদের ভাষায় সাম্পান ভাড়া করি আশে পাশে ঘুরার জন্য ১ ঘন্টা ১৫০ টাকা সাম্পান ঘুরে এসে আমরা চলে যাই কাপ্তাই ড্যাম ও সোলার প্যানেল প্রজেক্ট দেখতে ( এই জায়গা দেখতে অবশ্যই আপনাকে এর ভিতরে কর্মরত কেউ পরিচিত হতে হবে কারন পাস লাগে) ১০০ টাকায় সিএনজি নিয়ে আমরা ভিতরে ঘুরে দেখি
এবং দুপুর নাগাদ বের হয়ে জেটি ঘাটে দুপুরের খাবার খেয়ে নেই দুইজন ২০০ টাকায়, চলে যাই সৌদিয়ার টিকেট কাউন্টারে কেটে নেই জনপ্রতি ৫৫০ টাকায় কাপ্তাই টু ঢাকার টিকেট তারপর সেখানেই কিছুটা রেস্ট নিয়ে ১৫০ টাকায় সিএনজি রিজার্ভ করে চলে যাই নেভী একাডেমি প্রবেশমূল্য জনপ্রতি ২০ টাকা পুরো নেভী একাডেমী ভালভাবে ঘুরে দেখতে ২-৩ ঘন্টা লাগবে এবং এর অসাধারন রুপ ভাষায় প্রকাশ করার মত না এর জন্য নিজে গিয়ে একবার দেখে আসবেন, শেষ বিকেলের দিকে আমরা ১৫০ টাকায় কাপ্তাই জেটি ঘাট আসি এবং কাপ্তাই মাছেত আড়ৎ ঘুরে দেখি মাছের আড়ৎ জেটি ঘাটের কাছেই যেতে সময় লাগবে ২-৩ মিনিট. রাত ৮ টায় আমাদের বাস ছিল তাই হালকা নাস্তা করি ও রাস্তায় খাবার জন্য চিপস ও কিছু শুকনো খাবার কিনে নিই ৯০ টাকায়
২য় দিনের খরচ:
সিএনজি :৫০+১০০+১৫০+১৫০ টাকা
সকালের নাস্তা: ৬০টাকা
সাম্পান : ১৫০ টাকা
দুপুরের খাবার : ২০০ টাকা
বিকেলের নাস্তা :৯০ টাকা
কাপ্তাই টু ঢাকা বাস ভাড়া : ১১০০ টাকা
২য় দিনের মোট খরচ: ২০৫০ টাকা
১ম দিন ও ২য় দিনের মোট খরচ (৩১৫৬+২০৫০)
মোট: ৫২০৬ টাকা
জনপ্রতি খরচ ২৬০৩ টাকা.

আমাদের ২ জনের ট্যুর ছিল ৪ জন হলে খরচ কিছুটা কম হত আর টুকটাক কিছু খরচ হয়েছিল আমাদের তাই ২৬০০-৩০০০ টাকায় মোটামুটি ভাল একটি ট্যুর দিতে পারবেন আশা করি.
ভ্রমন হোক আনন্দময় এবং নিরাপদ.
বি:দ্র:- সৃষ্টিকর্তা খুব সুন্দর করে আমাদের এই ধরণীকে সাজিয়ে গুছিয়ে আমাদের হাতে তুলে দিয়েছেন তাকে রক্ষা করা আমাদের কর্তব্য তাই যেখানেই যাই না কেন যেখানে সেখানে ময়লা, পলিথিন, প্লাস্টিক সামগ্রী না ফেলে নির্দিষ্ট স্থানে ফেলব এবং অন্যকে এই কাজে উৎসাহিত করব ধন্যবাদ….

Source: Sazzad Shaon‎ <Travelers of Bangladesh (ToB)

Share:

Leave a Comment

Shares
error: Content is protected !! --vromonkari.com