কাশ্মীর ভ্রমণ নিয়ে কিছু তথ্য জেনে নেই

কাশ্মির এ যাওয়ার জন্য অনেক গুলো মাদ্ধম আছে । আপনি নেট থেকে তথ্য নিয়ে নিযেই ঘুরে আশতে পারবেন , কোন প্রকার ট্রাভেল আজেঞ্ছির হেল্প না নেয়া টা উত্তম । প্রথমে আপনাকে বাংলাদেশ থেকে কলকাতা যেতে হবে এরপর কলকাতা টু জম্মু যেতে হবে এরপর জম্মু টু শ্রীনগর যেতে হবে । আপনি শ্রীনগর পর্যন্ত যেতে বাই ট্রেন/ বাই এয়ার ব্যবহার করতে পারেন । তবে আমি মনে করি দূরের পথ বাই এয়ার এই দেয়া ভাল । কারন বাই ট্রেন আপনাকে অনেক কষ্ট পহাতে হবে । আমাদের ও অনেক কষ্ট হয়েছিল । যদি কম খরচে ট্যুর শেষ করতে চান তাহলে বাই ট্রেন এ যেতে পারেন । আর এই সব ট্যুর এ যেতে চাইলে জোর সংখ্যা মানুষ নিলে যাওয়া উত্তম , মানে ২ অথবা , ৪ অথবা , ৬ অথবা । এতে করে আপনার খরচ কমে যাবে । ট্রেন journey করার সময় প্রছুর খাবার নিয়ে নেয়া উত্তম । কারন ট্রেন আপনার মনের মত খাবার পাবেন না । আর খাবার আর মান ও ভাল হবে না । এবং ট্রেন অনেক সময় দেরি (delay) করতে পারে যেতে । কাশ্মির এর মানুষ খুব ভাল , তারা আপনাকে হেল্প করবে অনেক কিন্ত সব জায়গায় বাটপার এ ভরা ।

তাই একটু চোখকান খোলা রাকবেন । পুরা ট্যুর এ আমাদের খুব বেশি টাকা লাগেনি । আমরা খুব অল্প খরচে ট্যুর শেষ করতে পেরেছি । আমাদের শপিং বাদ দিয়ে সর্ব মোট খরচ হয়েছে ১৫০০০ টাকা । আমরা ৪ জন মানুষ ছিলাম আর এখন অফ ছিজন থাকায় সব জায়গায় কম খরচ পরেছে । আপনারা যদি ২জনও কাশ্মির এ যাওয়ার প্লান করেন ,এতে করে কোন সমস্যা হবে না কারন জাম্মু তে যাওয়ার পর অনেক বাংলাদেশি ভাই পেয়ে জাবেন । যাদের সাথে অ্যাড হয়ে ট্যুরটা সম্পূর্ণ করতে পারেন । কাশ্মির এ অনেক হোটেল আছে কম খরচে থাকার জন্য ,একটু খুজলেই পেয়ে জাবেন । আমরা ১৬০০ রুপিটে খুব দারুন #হোটেল পেয়েছিলাম Dal lake এর পাশে । কাশ্মির এর আবহওা অনেক শীতল এখন । তাই এই সময় যেতে চাইলে পর্যাপ্ত শীতের কাপড় নিয়ে নিন । কাশ্মীর মূলত অল ওয়েদার ট্যুরিস্ট এরিয়া।আবহাওয়া ও ভৌগোলিক দিক থেকে কাশ্মীরের মৌসুম চারটি। গ্রীষ্ম (জুন, জুলাই, আগস্ট), শরৎ (সেপ্টেম্বর, অক্টোবর, নভেম্বর), শীত (ডিসেম্বর, জানুয়ারি, ফেব্রুয়ারি) ও বসন্ত (মার্চ, এপ্রিল, মে)। চার মৌসুমে কাশ্মীরের চার রূপ। তবে শীতে কাশ্মীর ভ্রমণ করতে হলে আপনাকে রাখতে হবে বাড়তি প্রস্তুতি। গরম কাপড়, গ্লাভস, বুট সেখানে আবশ্যক। গ্লাভস আর বুট ভাড়া পাওয়া যায়, তাই শুধু শুধু বোঝা বয়ে নেওয়ার কোন মানে নাই। জ্যাকেট আর টুপি কিনে নিয়ে যেতে পারেন । টিউলিপ ফুল আর আপেল বাগান দেখতে চাইলে এপ্রিল মাস তো জুন মাস, আর চিনার (হিন্দী মুভি মোহাব্বাতিন এর বিখ্যাত পাতা) এর কমলা রংয়ের পাতা দেখতে চাইলে অবশ্যই অক্টোবর মাসে ভ্রমন করতে হবে। কাশ্মীরের খাবারও অনেক বেশি মজাদার এবং সুস্বাদু। কাশ্মীরে সাধারণত তিন ধরনের রন্ধনপ্রণালী অনুসরণ করে খাবার তৈরি করা হয়- কাশ্মীরি পণ্ডিত, মুসলিম এবং মোগল। তবে খাবার এ ঝাল হয়ে থাকে প্রচুর । কিন্তু অনেক সুস্বাদু। ।

এবার যাতায়াত নিয়ে আলোচনা করা যাকঃ

১।ঢাকা_টু_কলকাতা (বাই বাস)
ঢাকা থেকে কলকাতা সরাসরি যায় এমন বাসগুলো BRTC, Shyamoli, Surharda, Soudia, Shohag, Royal Coach। বাস ফেয়ার ৯০০-১৪০০ টাকা। সময় লাগে ১২-১৩ ঘন্টা, তবে রাস্তার অবস্থা ভেদে এদিক-সেদিক হবে।
২। #ঢাকা_টু_কলকাতা (বাই ট্রেন)
ট্রেন ছাড়ে শুক্রবার (৩১০৭), শনিবার (৩১১০), রবিবার (৩১০৭), বুধবার (৩১১০)। ভাড়া পড়তে পারে-
AC First Cabin: 3400 BDT (কম বেশি হতে পারে )
AC Chair: 2500 BDT (কম বেশি হতে পারে )
আপনি সর্বোচ্চ ৩০ দিন আগের টিকিট নিতে পারবেন।

৩।কলকাতা_টু_জম্মু (বাই ট্রেন)
পুরো কলকাতাতে ৫টি ইন্টারসিটি স্টেশন আছে। কলকাতা রেলওয়ে স্টেশন যা কিনা Chitpur Station নামেও পরিচিত। এছাড়া কলকাতার Sealdah (শিয়ালদহ) Staion, হাওড়ার Shalimar (শালিমার) Station, হাওড়ার Santragachi (সান্ত্রাগাছি) Junction Railway Station আর হাওড়ার হাওড়া (Howrah) স্টেশন।
কলকাতা থেকে জম্মু তাওয়াই যাওয়ার তিনটি ট্রেন আছে। হিমগিরি এক্সপ্রেস, হামসাফার এক্সপ্রেস আর জম্মু তাওয়াই এক্সপ্রেস।
***হিমগিরি এক্সপ্রেস সপ্তাহে তিন দিন (মঙ্গল, শুক্র, শনি) রাত ১১.৫০ এ হাওড়া স্টেশন থেকে জম্মুর উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। সময় লাগে ৩৬ ঘন্টা ৪০ মিনিট। এই ট্রেনে ৪টি ক্লাসের টিকেট আছে- SL (৭৫০ রুপি), 3A (১৯৮০ রুপি), 2A (২৮৫০ রুপি), 1A (৪৯৯৫ রুপি)।
***হামসাফার এক্সপ্রেস সপ্তাহে এক দিন (সোম) দুপুর ১.১০ এ শিয়ালদহ স্টেশন থেকে জম্মুর উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। সম
য় লাগে ৩৪ ঘন্টা ২০ মিনিট। এই ট্রেনে ১টি ক্লাসের টিকেট আছে- 3A (১৯৩৫ রুপি)।
***জম্মু তাওয়াই এক্সপ্রেস সপ্তাহের ৭ দিন সকাল ১১.৪০ এ কলকাতা স্টেশন থেকে জম্মুর উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। সময় লাগে অনেক বেশি ৪৫ ঘন্টা ৪০ মিনিট। এই ট্রেনে ৩টি ক্লাসের টিকেট আছে- SL (৭১৫ রুপি), 3A (১৯২০ রুপি), 2A (২৮৩০ রুপি)।

৩।জম্মু_টু_শ্রীনগর(বাই কার)
জম্মু থেকে শ্রীনগর এর দূরত্ব ৩২২ কি মি। গাড়ি করে যেতে হলে ৬ জনের দলের পার পারসন খরচ পড়বে ৭০০-১০০০ রুপি আর সময় লাগবে ৮ ঘন্টা। দল এর সংখ্যার উপরে নির্ভর করে কম বেশি হতে পারে ।

জম্মু থেকে শ্রীনগর যাওয়ার জন্য স্টেট ট্রান্সপোর্টের একটি বাস আছে, জনপ্রতি ৬০০ রুপি। সময় লাগবে সাড়ে ৭ ঘন্টা।
আরেকটি উপায় হল জম্মু থেকে বানিহাল যাওয়া। দূরত্ব ১৬০ কিমি, গাড়িতে সময় লাগবে ৫ ঘন্টা। বানিহাল থেকে ট্রেন করে শ্রীনগর যেতে সময় লাগবে ৩ ঘন্টা আর দূরত্ব ১১০ কিমি। এ ক্ষেএে খরচ পড়বে ৫৫০ রুপি পার পারসন। তবে যদি পাহাড়ি দশ হয় তাহলে কাজ শারছে । ঘণ্টার পর ঘণ্টা বশে থাকতে হবে । তাই জম্মু_টু_শ্রীনগর প্লেন এ যাওরা ভাল । আমরা আশা এবং যাওয়া ২দিনই পাহাড়ি দশ এ আটকা পরেছিলাম ।

আমার জীবনের অনেক গুলো ট্যুর এর মধ্যে সব চেয়ে বেষ্ট ট্যুর ছিল কাশ্মির । যতটুকু পেরেছি আপনাদের ফীলিংস টা শেয়ার করেছি । আশা করি সবার ভাল লাগবে । আর এই গ্রুপ এ আজকেই আমার প্রথম পোস্ট । লিখার মাঝে ভুল হলে ক্ষমা করবেন । আজ এই খানে শেষ করলাম, সবার সুন্দর জীবন কামনা করছি , টাট.।

Share:

Leave a Comment

Shares
error: Content is protected !! --vromonkari.com