গ্রীন ভ্যালী পার্ক ভ্রমণ

দেশের বিপুল সংখ্যক বিনোদপ্রেমী ও দর্শনার্থীদের সুবিধার্থে নাটোরের লালপুরে তৈরি হয়েছে ‘গ্রীন ভ্যালী পার্ক’।
পার্কটিতে বিনোদনের জন্য রয়েছে স্পীডবোট, প্যাডেল বোট, বুলেট ট্রেন, মিনি ট্রেন, নাগরদোলা, পাইরেট শীপ, ম্যারিগোরাউন্ড, হানি সুইং ইত্যাদি। এছাড়া প্রায় ত্রিশ একর জমির উপর বিস্তৃত নয়নাভিরাম লেক। বাহারী ফুলের সুবাসী মন মাতানো গন্ধ, আঁকা-বাকা নয়নাভিরাম লেকের বাহার আর পানি পথের রাজা অর্থাৎ দূরন্ত গতির স্পিডবোটে ঘুরে আপনার মন সতেজ হবেই।

দর্শনার্থীরা নির্দিষ্ট প্রবেশ মূল্য দিয়ে (৫০ টাকা) পার্কে যেতে পারবেন। এছাড়া গাড়ি পার্কিং এর জন্যও রয়েছে সুব্যবস্থা। প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত খোলা থাকে পার্কটি। তবে ঋতু পরিবর্তনের সঙ্গে এই সময় পরিবর্তন হয়।

দেশের যে কোনো প্রান্ত থেকে মাইক্রোবাস, বাস ও মোটর সাইকেল যোগে সহজেই যেতে পারেন লালপুর। এছাড়া রেল পথে আব্দুলপুর রেলওয়ে জংশনে নেমে মাত্র ১২ কিলোমিটার দক্ষিনে এলেই দেখা মিলবে পার্কটির। লালপুর সদর থেকে পার্কটির দূরত্ব মাত্র ২ কিলোমিটার।

পার্কের সুবিধা সমূহ: পিকনিক স্পট, শ্যুটিং স্পট, এ্যাডভেঞ্চার রাইডস, কনসার্ট এন্ড প্লে গ্রাউন্ড, নিজস্ব বিদ্যুৎ সুবিধা, নামাজের সু-ব্যবস্থা, সিকিউরিটি সার্ভিসের ব্যবস্থা, ডেকোরেটর সুবিধা, গাড়ি রাখার ব্যবস্থা, ক্যাফেটেরিয়া, শপ কর্ণার, সভা-সেমিনার এর জায়গা, আবাসিক ব্যবস্থাসহ নানা ধরনের সুবিধা।
যেভাবে যাবেনঃ

*ঢাকা থেকে সরাসরি বাসযোগে যেতে হলে ইশ্বরদী-বাঘা বাসে করে বাঘা এসে নামতে হবে। তারপর সি এন জি যোগে লালপুর যেতে হবে, ভাড়া জনপ্রতি ২০/২৫ টাকা।
*রাজশাহী থেকে যেতে চাইলে চারঘাট-বাঘার বাসে করে বাঘা এসে নামতে হবে। তারপর সি এন জি যোগে লালপুর যেতে হবে, ভাড়া জনপ্রতি ২০/২৫ টাকা। ২ ঘন্টা সময় লাগবে পৌছাতে।
*নাটোর বাইপাস থেকেও যেতে পারেন সেক্ষেত্রে ৩৫ টাকা বাস ভারা করে লালপুর যেতে হবে তারপরে ১০ টাকা ভ্যান ভাড়া করে পার্কে যেতে পারবেন।
*ট্রেনে যেতে টাইলে আবদুলপুর বাইপাসে নামতে হবে, তার পর সেখান থেকে ১২ কি.মি. পথ অতিক্রম করে লালপুর যেতে হবে।

Source:  Rakib Riyad <‎Travelers Of Bangladesh (TOB)

Share:

Leave a Comment

Shares