টেকনাফ-সেন্ট মার্টিন নৌপথ চলন্ত জাহাজ থেকে সাগরে পর্যটক, পরে ট্যুরিস্ট পুলিশের উদ্ধার

অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহনের অভিযোগে টেকনাফ-সেন্ট মার্টিন নৌপথে চলাচলকারী এলসিটি কুতুবদিয়া জাহাজ কর্তৃপক্ষকে আজ মঙ্গলবার এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। অতিরিক্ত যাত্রী বহনের অভিযোগে তাৎক্ষণিক ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে জাহাজ কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে এক লাখ টাকা জরিমানা আদায় করেন জেলা প্রশাসনের ম্যাজিস্ট্রেট ফারজানা প্রিয়াংকা।

বেলা একটার দিকে চলন্ত অবস্থায় ওই জাহাজ থেকে আরিত্র মো. মজিদ নামের একজন পর্যটক সাগরে পড়ে যান। পরে তাঁকে সাগর থেকে উদ্ধার করা হয়।আজ সেন্টমার্টিন গামী জাহাজ এলসিটি কুতুবদিয়া থেকে সাগরে পড়ে যাওয়া পর্যটক জনাব অরিত্র মোঃ মুজিব, পিতাঃ মোঃ গিয়াস উদ্দিন,ধৌদ্ধা, বোদা, পঞ্চগড়,মোবাইল-০১৭৮৩৬৮২৭৮৪ কে ট্যুরিস্ট পুলিশের এএসআই/৫৯ মোঃ জুমায়েত হোসেন উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎ

ছবিতে পর্যটকের লিখিত বক্তব্য।

সা দিয়ে সুস্থ করে তোলেন।

পর্যটকদের অভিযোগ, জাহাজটিতে ধারণক্ষমতার বেশি যাত্রী ওঠানোর কারণে জাহাজে উঠে চেয়ারে বসা তো দূরের কথা, ঠাসাঠাসি করে দাঁড়ানোরও জায়গা না পেয়ে অবাক হন অনেক পর্যটক। এর ওপর ধারণক্ষমতার বেশি টিকিট বিক্রয় করায় নির্ধারিত সময়ের দুই ঘণ্টা দেরিতে জাহাজটি সেন্ট মার্টিনের উদ্দেশে দমদমিয়া ঘাট থেকে রওনা দেয়। এর মধ্যে জাহাজের এক পাশের বারান্দায় দাঁড়াতে গিয়ে একজন পর্যটক সাগরে পড়ে যান।

উপজেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, মঙ্গলবার সকাল সাড়ে নয়টার দিকে টেকনাফের দমদমিয়া জেটিঘাট দিয়ে এলসিটি কুতুবদিয়া জাহাজটি ছেড়ে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ওই জাহাজটির ধারণক্ষমতা ৩০০ জনের স্থলে ৮১৭ জন পর্যটক তোলা হয়। টিকিট আছে, কিন্তু বসার জায়গা না পেয়ে পর্যটকদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। কিছু পর্যটক টিকিটের টাকা ফেরতের দাবি জানাতে থাকেন। এ নিয়ে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় প্রশাসনের লোকজন এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। প্রশাসনের বাধার মুখে প্রায় দুই ঘণ্টা দেরিতে সেন্ট মার্টিনের উদ্দেশে রওনা দেয় জাহাজটি। প্রায় দেড় ঘণ্টা চলার পর এলসিটি কুতুবদিয়া জাহাজটি সাগরের মাঝপথে শাহপরীর দ্বীপের উল্টো পাশে গেলে জাহাজ থেকে আরিত্র মো. মজিদ নামের এক পর্যটক সাগরে পড়ে যান।

 

 

 

Share:

Leave a Comment

Shares
error: Content is protected !! --vromonkari.com