তেঁতুলিয়া ও পঞ্চগড় ভ্রমণ

বিগত 9 তারিখে আমি ও আমার এক বন্ধু মিলে পঞ্চগড় ভ্রমণের জন্য যাত্রা শুরু করি। উদ্দেশ্য কাঞ্চনজঙ্ঘা পরিদর্শন। হোটেল আগে থেকে বুক করা ছিলো। যেহেতু ডাক বাংলো পাইনি তাই তার খুব পাশেই RDRS নামক এনজিওর হোটেলে উঠলাম। বাস ছিলো সন্ধ্যা 7 টায়। সেখানে গিয়ে পৌছলাম সকাল সাড়ে আটটায় । গিয়েই কাঞ্চনজঙ্ঘার দেখা পেলাম। তারপর নাস্তা করে জিরো পয়েন্ট, কাজী চা বাগান, মীনাবাজার ঘুরে এসে তেতুলিয়াতে জুম্মা পড়লাম। তারপর বাজারের বাংলা হোটেলে মধ্যাহ্নভোজ সারলাম। এখানে অবশ্যই ভর্তা টেস্ট করে দেখবেন। ভর্তা খাওয়ার জন্য হলেও আবার আসতে চাইবেন। তারপর হোটেলে ফিরে বিশ্রাম নিয়ে ডাক বাংলোতে নাইট ভিউ উপভোগ করলাম। তারপর রাতে আবার বাজারে গিয়ে রাতের খাবার খেয়ে রুমে এসে শুয়ে পড়লাম। পরে ফজরের নামাজ পরে সকালের কাঞ্চনজঙ্ঘা দেখার জন্য বের হলাম। সেখানে একটু অপেক্ষার পরে সেই কাঙ্ক্ষিত দৃশ্য দেখা পেলাম। তারপর মহানন্দা নদীর পাড়ে সময় কাটিয়ে নাস্তা করে সকাল 9 টার দিকে পঞ্চগড়ে উদ্দেশ্যে রওনা দিলাম।

এবারের টার্গেট ভিতরগড় মহারাজা দিঘী। বাস থেকে বোর্ড বাজারে নামলাম। তারপর অটোতে করে যেতে হবে। ভাড়া জনপ্রতি 15=/. তারপর। আবার অটোতে করে মডেল হাট। ভাড়া 5=/. তারপর পাগলুতে করে পঞ্চগড় শহরে। ভাড়া 20=/. তারপর দেখতে গেলাম রক্সস মিউজিয়াম। সেখান থেকে নিরব হোটেল। দুপুরে র খাওয়ার পরে গেলাম ধাক্কামারা বাস টার্মিনাল । সেখান থেকে আটোয়ারী যাত্রা। অবশ্যই বাসের হেল্পারকে বলবেন মির্জাপুর নামাতে। সেখানে বাজারের কাউকে বললেই শাহী মসজিদ দেখিয়ে দিবে। অতপর সেখান থেকে ভ্যানে করে বার আউলিয়ার মাজার পরিদর্শন। সেখান থেকে আবার পঞ্চগড় ব্যাক। ভ্যান ভাড়া আপ ডাউন 120. /= এভাবেই শেষ হলো একটি ভ্রমন।

কীভাবে যাবেন :
উত্তরা থেকে তেতুলিয়া পর্যন্ত শুধো হানিফ পরিবহণ যায়।
ভাড়া 700=/।
তেতুলিয়াতে ঘুরার ভ্যান।
ভাড়া 400-700=/
তেঁতুলিয়া থেকে পঞ্চগড় বাস
ভাড়া 50=/
পঞ্চগড় শহর থেকে মিউজিয়াম, খাবারের হোটেল, বাস টার্মিনাল এর ভাড়া 15-20=/
তেঁতুলিয়া বাস টার্মিনাল থেকে ডাকবাংলো ভ্যান ভাড়া 20=/
পঞ্চগড় থেকে উত্তরা শ্যামলী পরিবহন 600=/
ধাক্কামারা টার্মিনাল থেকে আটোয়ারী 20=/

Post Copied From: Sakib Sacrosuchus‎ > Travelers of Bangladesh (ToB)

Share:

Leave a Comment

Shares
error: Content is protected !! --vromonkari.com