পাতরাইল মসজিদ (ভাংগা, ফরিদপুর)

সুলতানি আমলের নির্দশনের ভিতর যে কয়টা টিকে আছে পাতরাইল মসজিদ এর মধ্যে অন্যতম। প্রায় ৬০০ বছরী এই মসজিদ টিকে আছে সুলতানি আমলের সাক্ষী হয়ে। এলাকাবাসীর কাছে ইহা গায়েবী মসজিদ নামে বেশি পরিচিত। তৎকালীন সময় আউলিয়া আব্দুল খান প্রজাদের পানির কস্ট দূর করার জন্য এই মসজিদের পাশে দুটি দীঘি নির্মান করেন। এই মসজিদটি ফরিদপুরের অন্যতম পুরাকীর্তিও ও বলা যেতে পারে। মসজিদের গায়ে আছে ফুল লতার ট্যারাকোটা। মসজিদটি আয়তনে অন্যান্য সুলতানি আমলের মসজিদ থেকে বেশ বড়। ধারনা করা হয় ১৩৯৩ হতে ১৪১০ খ্রিস্টাব্দের মধ্যে গিয়াসউদ্দিন আযম শাহ নির্মান করেন। মহান সুফী সাধক আউলিয়া আব্দুল খানের মাজার এই মসজিদ আংগিনায় অবস্থিত। এই ছাড়াও আর দু’জন সুফী সাধকের মাজার এই মসজিদ প্রাংগনে রয়েছে। মসজিদের আংগিনায় সায়িত আছেন মস্তান দরবেশ নাজিমদ্দিন দেওয়ান। এছাড়া মসজিদের দক্ষিন পাশে আছে ফকির ছলিমদ্দিন দেওয়ানের মাজার।

কি ভাবে যাবেনঃ ফরিদপুর থেকে ফরিদপুর-বরিশাল মহাসড়কে ভাঙ্গা গেলচত্ত্বরে নেমে ভাঙ্গা-মাওয়া বিশ্বরোডে ৮ কিঃ মিঃ পূর্বদিকে পুলিয়া নেমে ৪ কিঃমিঃ দক্ষিণে পাতরাইল মসজিদ। যাওয়ার সময় সেখানকার যে কোন পরিবহন যাওয়া-আসার জন্য একসাথে ভাড়া করে নেয়া ভালো। কারন পাতরাইল মসজিদ থেকে ফেরার জন্য পরিবহন পাওয়া একটু কঠিন।

Post Copied From:Ashik Sarwar‎>Travelers of Bangladesh (ToB)

Share:

Leave a Comment

Shares
error: Content is protected !! --vromonkari.com