পানির নিচে অবাক করা ৫টি ভবন (ভিডিও)

আপনি হয়তো স্বপ্ন দেখছেন, পানির নিচে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। মাছেরা আপনার চারপাশ দিয়ে ঘোরাঘুরি করছে। অথবা আপনি ঘুমিয়ে আছেন কোনো জলপরীর আবাসস্থলে। চাঁদনি রাতে মিটিমিটি আলো পানি ভেদ করে জড়িয়ে ধরছে আপনাকে।

হ্যাঁ, আপনার এমন স্বপ্ন এখন সত্যি হচ্ছে। পানির নিচে ঘুরে বেড়ানো, খাওয়া-দাওয়া, ঘুমানোসহ অন্যান্য কাজ আপনি করতে পারবেন একেবারে স্বাভাবিকভাবেই। এতে আপনার দম বন্ধ হবে না বা এক ফোটা পানিও আপনার শরীরে লাগবে না।

পৃথিবীজুড়ে ভ্রমণপিয়াসূ আর বিলাসী মানুষদের জন্য বিভিন্ন দেশে পানির নিচে তৈরি হয়েছে নানা হোটেল। আপনি অর্থের বিনিময়ে এসব হোটেলে থাকতে পারেন। স্বপ্নে দেখা স্মৃতিকে বাস্তবে উপভোগ করতে পারেন। এখানে কয়েকটি হোটেলের তথ্য তুলে ধরা হল-

১. দ্যা মুরাকা: মুরাকা নামের হোটেলটি মালদ্বীপে অবস্থিত। বিশ্বের প্রথম পানির নিচে আবাসিক হোটেলে থাকার ব্যবস্থা করে মালদ্বীপ। মুরাকাই সেই হোটেল। হোটেলটি সাড়ে ১৬ ফুট পানির নিচে অবস্থিত। চার পাশে কাচের দেয়াল থাকায় সমুদ্রের নিচের পুরো সৌন্দর্য্য উপভোগ করা যায়। এই হোটেলে এক দিন থাকতে খরচ হয় ৫০ হাজার ডলার বা ৪০ লাখ টাকা।

২. জুলস আন্ডারসি লস: এটি যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় অবস্থিত। হোটেল ৯ মিটার পানির নিচে অবস্থিত। এই হোটেল যে কেউ যেতে পারেন না। এখানে যারা যেতে চান তাদের স্কুবা ড্রাইভিংয়ের সার্টিফিকেট থাকতে হয়।

৩. দ্যা মানতা রিসোর্ট: মানতা রিসোর্টটি পেম্বা আইল্যান্ডে অবস্থিত। এটি সমুদ্র কিনারা থেকে প্রায় ৮০০ ফুট দূরে ৪০ ফুট পানির নিচে অবস্থিত। হোটেলটি পানির নিচে তিনটি তলা রয়েছে। এখানে রাতে চাঁদের আলো কাচ ভেদ করে ছড়িয়ে পড়বে আপনার বিছানায়। এখানে রাতের জন্য ১৫শ ডলার বা ১লাখ ৩০ হাজার টাকা খরচ করতে হয়।

৪. ওয়াটার ডিসকাস আন্ডারওয়াটার হোটেল। এই হোটেলটি দুবাইয়ে অবস্থিত। অসাধারণ নকশায় তৈরি করো হয়েছে এই হোটেল। পানির নিচের প্রাণীদের জীবনাচরণ দেখার জন্য এটি সবচেয়ে সুন্দর হোটেল।

৫. ফ্লটিং সি হর্স রিট্রিট: এটিও দুবাইয়ে অবস্থিত। সমুদ্রের নিচে থাকার জন্য এই হোটেলটি সবচেয়ে সুন্দর। এটি তিন তলা ভবন। এর মধ্যে এক তলা পানির নিচে। আপনি একই সাথে পানির নিচে আনন্দ করতে পারবেন, আবার চাইলে উপরেও।

Share:

Leave a Comment

Shares
error: Content is protected !! --vromonkari.com