মাত্র ১০-১২ হাজার টাকায় ঘুরে আসতে পারেন দার্জিলিং

দার্জিলিং থেকে আপনি চাইলেই মাত্র ১০-১২ হাজার টাকায় ঘুরে আসতে পারেন। কি অবাক হচ্ছেন? চলুন তাহলে দেখে নেওয়া যাক খরচের পরিমানটা।

ঢাকা থেকে চ্যাংড়াবান্ধা সীমান্তে এসি বাসে ভাড়া সর্বোচ্চ ১০০০ টাকা নিবে। আর যদি সরাসরি শিলিগুড়ি যেতে চান তাহলে ১৮০০ টাকা নিবে। তবে শিলিগুড়ি সরাসরি না যাওয়াই ভাল। কারন চ্যাংড়াবান্ধা পোর্ট থেকে শিলিগুড়ি যেতে বাসে মূলত লাগে মাত্র ৭০-৮০ টাকা। রিজার্ভ গাড়িতে গেলে ৩০০ টাকার মত লাগে। তাই অহেতুক ৫০০-৬০০ টাকা বাড়তি খরচের কোন মানেই হয় না। আর হ্যা বর্ডারে ট্যাক>্সবাবদ বাড়তি ১৭০০ টাকার মত নেয়। এটাই সবাইকে দিতে হয়। শিলিগুড়ি পর্যন্ত খরচ পরবে সর্বোচ্চ ৩৫০০ টাকা।

এরপর শিলিগুড়ি প্রধান বাস স্টপেজ তেনজিং নোরগে বাস টার্মিনালে থেকে অনেক জিপ গাড়ি দেখবেন দার্জিলিং যাবার জন্য ডাকাডাকি করছে। সেখান থেকে জনপ্রতি ১৫০ টাকা ভাড়া দিয়ে ৩ ঘন্টা যেতে লাগবে দার্জিলিং এ।

এরপর দার্জিলিং এ গিয়ে আপনি ১০০০-১২০০ টাকার মধ্যে অনেক হাইফাই হোটেলই পাবেন। যেখানে একেক রুমে ৩ জন অনায়াসে থাকতে পারবেন। দার্জিলিং পুরো ঘুড়তে আপনার সর্বোচ্চ ৩ রাত ৪ দিনের মতো লাগবে।

এবার আসেন ঘুরতে যাওয়া। যদি একা বা ২-১ জন যান তাহলে আমি অবশ্যই বলবো শেয়ারে দর্শনীয় স্থান গুলিতে যান। দার্জিলিং এ ৩ টি প্রধান স্পট আছ, একটা হলো টাইগারহিল+বাতাসিলুপ, ২য় টা সেভেন পয়েন্ট(যেখানে ৭ টা দর্শনীয় স্থান আছে) বাকিটা হচ্ছে রক গার্ডেন। যদি শেয়ারে যান তাহলে প্রত্যেক স্থানে গেলে ২০০ টাকা করে পড়বে জনপ্রতি। অর্থ্যাৎ ৩ টা স্থান সহ পুরো দার্জিলিং মাত্র ৬০০ টাকা দিয়েই আপনি ঘুরে আসতে পারবেন। শেয়ারে গাড়ি যদি খুজে না পান তাহলে একটা হোটেলের নাম বলছি, সেটা ‘সোনার বাংলা’ নামের একটা হোটেল আছে দার্জিলিং বড় মসজিদের সামনে। বড় মসজিদের ওখানে গিয়ে যে কারো কাছে জিজ্ঞাস করলে দেখিয়ে দিবে। পরে হোটেলের লোকজন আপনাকে সময় বলে দিবে কখন কয়টার সময় গাড়ি যাবে। আপনি শুধু কনফার্ম করে আসবেন। আর গ্রুপভিত্তিক রিজার্ভ গাড়ি নিয়ে গেলে অন্য হিসাব। কয়জন যাবেন তার উপর নির্ভর করবে কার কত ভাড়া পড়লো। রিজার্ভে প্রত্যেক স্থানে গেলে গড়ে ১৫০০ টাকার মত লাগবে। ৬-৭ জন গেলে মাথাপিছু প্রত্যেক স্থানে ২০০-২৫০ মতই লাগে।

এবার আসি খাওয়ার খরচের কথা। খাবার দাবারের দাম এখানে খুব সস্তা। আপনি দার্জিলিং বড় মসজিদের ওইখানে কয়েকটা হালাল/ মুসলিম হোটেল আছে (ওই সোনার বাংলা হোটেলের পাশেই) ওখান থেকে খেতে পারবেন বা অন্য কোথা থেকেও খাওয়া দাওয়া করতে পারবেন। ৪ দিন থাকলে আপনার খাবার খরচ সর্বোচ্চ ২০০০ টাকার মত পড়বে।

৩ রাত ৪ দিন থাকার পর আপনি বাংলাদেশের উদ্দেশ্য রওনা দিবেন দার্জিলিং বাসস্ট্যান্ড থেকে জিপ গাড়িতে ১৫০ টাকা করে শিলিগুড়ি আসবেন। সেখান থেকে আবার ৭০-৮০ দিয়ে চ্যাংড়াবান্ধা বর্ডারে চলে আসলেন। এখন আর বর্ডারে বাড়তি কোন খরচ দিতে হবে না। ১০০০ টাকা র টিকেট করে রাতের ট্রিপে সকালে ঢাকা চলে আসলেন।

হিসাব করে দেখুন ১০ হাজার টাকার ১ টাকাও বেশি পড়বে না। তবুও আমি বাড়িতি ২০০০ টাকা বেশি নিতে বলেছি। তবে ৫-৭ জনের গ্রুপে গেলে আরও খরচ কম।
আর বাড়তি কেও যদি কেনাকাটা, শপিং বা পরিবারের জন্য কিছু নিতে চান তাহলে সেটার হিসেব আলাদা।

উপরে যা বলেছিলো আমি ব্যাক্তিগত ভাবে গত বছরের সেপ্টেম্বরে যখন দার্জিলিং গিয়েছিলাম ঠিক এমনটাই করেছিলাম।

Source: Shahriar Alam Pias < Travelers Of Bangladesh (TOB)

Share:

Leave a Comment

Shares
error: Content is protected !! --vromonkari.com