মাত্র ১৫ হাজার টাকায় ঘুরে আসুন( কল্কাতা,মানালী,দিল্লী)

১)কলকাতা(হাওরাব্রীজ,ইডেন গার্ডেন,বিদ্যাসাগর ব্রীজ,ভিক্টোরিয়া পার্ক)
২)দিল্লী(আগ্রা তাজমহল,ইন্ডিয়া গেট,লোটাস টেম্পল,আগ্রা ফোর্ট)
৩)মানালী(সোনাংভ্যালী,রোথাংপাস)

আমরা সফরসঙ্গী ছিলাম ২ জন।
১ম দিন: রাতের খাবার খেয়ে বাসে(হানিফ নন এসি 500 টাকা )রওনা দিলাম সকালে বেনাপোল বর্ডারে পৌছাই।নাস্তা করে (40টাকা) ইমিগ্রেসন এ যাই।
খরচ :500+ 40=540 টাকা

২য় দিন ঃ বর্ডার পার হলাম (৫০০ টাকা ) এরপর অটোতে করে বনগাঁ রেলস্টেশনে গেলাম(৩০রুপি)।বনগাঁ থেকে লোকাল ট্রেনে করে শিয়ালদাহ স্টেশনে এসে নামলাম (২০ রুপি)।সকাল ১১ টা বাজে তখন।আমরা দেরি না করে একটা ট্যাক্সি রিসার্ভ করে(১০০/২=৫০ রুপি)মারকস্ট্রীট আসলাম। সুহাগ কাউন্টার এর অপর পাশে একটা ট্যুরিস্ট এজেন্ট থেকে দিল্লীর রাজধানী ট্রেন এর টিকেট কাটলাম(এসি ৩ টায়ার 2300 টাকা)। আমাদের ট্রেন বিকাল ৫ টায় টাই আর আমরা হোটেল না নিয়ে ব্যাগগুলু ট্যুরিস্ট অফিস এ রেখে দুপুরের খাবার খেয়ে নিলাম(100রুপি থালি)।খাবার খেয়ে একটা ট্যাক্সি ভাড়া করলাম ইডেন গার্ডেন আর হাওড়া ব্রিজ যাওয়ার জন্নে(150/2=75 রুপি)।আসার সময় ভিক্টোরিয়া পার্ক ঘুরে আসলাম(80/2=40 rs) এরপর ট্রেন এ উঠার জন্নে শিয়ালদাহ(70/2=35 rs)গেলাম।ট্রেন এ কমপ্লিমেন্টআরি খাবার ছিল।
খরচঃ2650*1.2=3180+500=3680tk

৩য় দিন ঃ সকাল ১০টায়নিউ দিল্লী ষ্টেসনে নামার পর রাস্তা পার হয়ে একটা এজেন্সির অফিসে যাই।এজেন্সি থেকে মানালী যাওয়া আসার টিকেট কেটে নেই(আসা যাওয়া 2200 রুপি)
আমরা 2 ঘনট্ার জন্য একটা হোটেল ভারা করি(300/2=150রুপি)জরুরী কাজ আর দোসল সেরে আমরা একটা অটো ভাড়া করি(250/2=125রুপি)ইন্ডিয়া গেট আর লোটাস টেম্পল নিয়ে যাওয়ার জন্যে।জায়গাগুলো ঘুরার পর মেট্রোরেলে করে দিল্লী(পাহারগন্জ) ফিরে আসি(30রুপি) আসতে আসতে 5 টা বেজে যায়।পাহারগন্জ থেকে মানালীর গাড়ি স্টপেজ জাওয়ার জন্যে অটো রিজার্ভ করলাম(60/2=30রুপি)5.30 এ পৌছাই স্টান্ড এ।দুপুরের খাবার(120রুপি)খেয়ে গাড়িতে উঠি।প্রায় 13 ঘন্টা আকা বাকা পাহার পেরিয়ে মানালী পৌছাই(রাতের ব্রেকে রাতের খাবার খেয়েছিলাম 200রুপি)
খরচ:2805*1.2=3366

৪ দিন:সকালে মানালী পৌছে হোটেল ঠিক করারা জন্য বাস স্টান্ড থেকে শহরে যাই(100/2=50রুপি)
1000রুপির হোটেল পেতে একটু বেগ পেতে হয়েছিল(1000/2=500)
সকালের নাস্তা(50রুপি)করে ট্যাক্সি শেয়ার করে রওনা দেই রুথাংপাস আর সুনাংভ্যালীর উদ্দেশ্যে(3300/3=1100রুপি)।ঘুড়ে আসতে আসতে বিকাল পার হয়ে যায়।খাবার খরচ 100রুপি।রাতে হোটেল থেকে বের হয়ে শহরটা ঘুড়ে দেখলাম পায়ে হেটে।রাতের খাবার 140রুপি
খরচ:1800*1.2=2160

৫ম দিন :ঘুম থেকে উঠে নাস্তা করে(50রুপি) বের হলাম মানালীর আশে পাশে ঘুরার জন্যে।একটা অটো নিয়ে আশেপাশে ঘুরার জন্য বের হলাম(250/2=125রুপি)মানালীতে জুসটা ভালো হয়।সাথে ছিল চেরি ফল এগুলো মিস করলাম না(150রুপি সব মিলে)পাহার থেকে নেমে আসা বরফ গলা পানির কি জেনো একটা নদী নাম মনে নেই।বের হওয়ার আগে চেক আউট করে ব্যাগ হোটেলের নিচে রেখে গিয়েছিলাম তাই কোন চিন্তা না করে দুপুরের খাবার বাহির থেকে খেয়ে(120রুপি)বিকালে হোটেল থেকে ব্যাগ নিয়ে সন্ধায় রওনা দিলাম দিল্লীর উদ্দেশ্যে।টিকেট আগেই কাটা ছিল।রাতের খাবার ব্রেক টাইমে খেয়ে (100রুপি)সকালে দিল্লী পৌছালাম।
মোট খরচ :654টাকা

৬ দিন :দিল্লী এসেই প্লান করলাম আগ্রা যাবো।তাই নাস্তা করে(45রুপি) দিল্লী থেকে আগ্রা জাওয়ার ট্রেন এর টিকিট(50রুপি) এবং আগ্রা থেকে কলকাতা(1400রুপি)যাওয়ার টিকিট কেটে নিলাম।12 টায় আগ্রা পৌছালাম।একটা অটো রিসার্ভ করলাম(300/2=150রিুপি)তাজমহল এবং আগ্রা ফোর্ট ঘুরার জন্যে।তাজমহল এন্ট্রি ফরেইনারদের 500 রুপি থাকলেও কম খরচে ভিতরে ঢোকার দালালের অভাব নেই।দালাল ধরে 150রুপি দিয়ে ভেতরে ঢুকলাম।আর রেড ফোর্ট এর প্রবেশ 50রুপি।খাবার খেয়ে(120রুপি) বিকাল 5 টায় কলকাতার উদ্দেশ্যে ট্রেনে উঠি।ট্রেনেই রাতের খাবার খেয়ে নেই(100রুপি)।
৭ম দিন ঃ সকাল10 টায় এসে পৌছালাম শিয়ালদাহ।ফিরে এলাম আবার মার্কস্ট্রিট(100/2=50রুপি)হোটেল ইরাম এ রুম নিলাম(1000/2=500রুপি এসি)নাস্তা করে(50রুপি) শপিং এ বের হলাম।
দুপুর+রাতের খাবার(200রুপি)

খরচ (৬+৭ম দিন) :2865*1.2=3438টাকা

৮ম দিন :সকালের নাস্তা(50রুপি)করে চলে আসলাম শিয়ালদাহ(80/2=40রুপি)।লোকাল ট্রেনে করে বনগাঁ(20রুপি)।অটোতে করে(30রুপি)বর্ডারে এসে বর্ডার পার হয়ে চলে আসলাম আমার দেশে।।।দপুরের খাবার খেয়ে(100টাকা)
সোহাগ(550টাকা নন এসি)বাসে করে চলে আসলাম ঢাকা।
খরচ:(140*1.20=168+100+550=818টাকা)

মোট খরচ :540+3680+3366+2160+654+3438+818=14656 tk
অলিখিত হিসাব+14656=15000tk

Share:

Leave a Comment

Shares
error: Content is protected !! --vromonkari.com