লঞ্চের মাধ্যমে ঢাকা থেকে চাঁদপুর যেভাবে যাবেন

প্রথমে একটি টিকিট ক্রয় করে ঢাকা লঞ্চঘাটে প্রবেশ করতে হবে।টিকিট মূল্য -৫ টাকা।

ঢাকা লঞ্চঘাটের ২ নং টার্মিনাল থেকে চাঁদপুরের লঞ্চগুলো ছেড়ে যায়।

যদি আপনি লঞ্চের ‘ডেকে'(১০০ টাকা) যান তাহলে লঞ্চ থেকে নামার সময় টিকিট কাটতে পারবেন অন্যথায় লঞ্চে ভিতরে প্রবেশ করার সময় টিকিট কাটতে হবে।
নিচের চেয়ার -১৫০ টাকা।
সিংগেল কেবিন-৪০০/৫০০ টাকা (নন এসি/এসি)
ডাবল কেবিন-৮০০/৯০০ টাকা(নন এসি/এসি)

৪-৫ জন গেলে একটা সিংগেল কেবিন নিয়ে সেটায় ব্যাগ রেখে তারপর সবাই ঘুরাঘুরি করতে পারেন।এক্ষেত্রে একজনের কেবিনের ভাড়া এবং বাকিদের ডেকের ভাড়া দিতে হবে।যেমন:৪০০+১০০+১০০+১০০+১০০(৫ জনের ক্ষেত্রে)

বর্তমানে এই রুটের লঞ্চের শিডিউল:

ঢাকা থেকে, চাঁদপুর

সকাল- সকাল-
৬:০০ ৬:০০
৬:৪৫ ৬:৪৫
৭:২০ ৭:২০
৮:০০ ৮:০০
৮:৩৫ ৯:০০
৯:১৫ ৯:৩০
৯:৫০ ১০:০০
১০:২৫ ১০:৩০
১১:০০ ১১:০০
১১:২৫ ১১:২০
১১:৪৫ ১২:০০
১২:৩০ ১:০০
১:৩০ ——
০২:৩০ ২:০০
০৩:৩০ ২:৩০
০৪:৩০ ৩:৪০
০৫:৩০ ——
৬:৪৫ ৫:০০
৭:৪৫ ৬:০০
১০:৩০ ৭:০০
১১:০০ ——-
১১:৩০ ১০:২০
১১:৩০ ১১:১০
১২:০০ ১২:১৫
১২:৩০ ১২:৩০

লঞ্চঘাট থেকে বড়স্টেশন মাছের আরদ/রেল স্টেশন ১.৫ কিলোমিটার দূরত্ব। ভাড়া -২০ টাকা(রিকশা)

মাছের আরদ থেকে কালীবাড়ি ১.৩ কিলোমিটার দূরত্ব। ভাড়া-৫ টাকা(অটো)

ওয়ান মিনিট আইসক্রিম -৪০ টাকা।
মিষ্টি-১০/২০ টাকা।
ছানা- না খাওয়াই ভাল হবে।

মৌসুম অনুযায়ী ইলিশ মাছের দাম উঠা নামা করে।

মাছ কিনে ঢাকায় আনতে চাইলে বিক্রেতারা বরফ দিয়ে প্যাকেট করে দিবে।

মাছ কিনে খাবার হোটেলে দিলে তারা ১০০ টাকার বিনিময়ে মাছটি কেটে রান্না করে দিবে।

বড় স্টেশন পার্কে(তিন নদীর মোহনা) প্রবেশ মূল্য ১৫/২০ টাকা।

এছাড়াও বাস এবং ট্রেনে চাঁদপুর যাতায়াত করা যায়।

Share:

Leave a Comment

Shares
error: Content is protected !! --vromonkari.com