সুনামগঞ্জের টাঙ্গুয়ার হাওর

খুব অল্প খরচে ১ দিন সময় নিয়ে ঘুরে আসুন দেশের অন্যতম বৃহৎ হাওর থেকে। বলছি সুনামগঞ্জের টাঙ্গুয়ার হাওরের কথা।
এই নভেম্বরের শুরুতেই আমরা ৮ জন মিলে ঘুরে এলাম টাঙ্গুয়ার হাওর থেকে। ঢাকা – সুনামগঞ্জ এবং ফিরতি বাসের খরচ বাদ দিলে বাদবাকি মোট খরচ নিতান্তই কম। ঢাকা থেকে এনা’র রাতের বাসে করে গিয়েছিলাম আমরা ৫৫০ টাকা ভাড়ায়। বাসষ্ট্যান্ড থেকে তাহিরপুরের জন্য লেগুনার উঠি প্রতিজন ৬০ টাকা করে। চাইলে লেগুনা/অটো রিক্সা/সি এন জি রিজার্ভ করেও যাওয়া যায়। তাহিরপুর থেকে নাস্তা সেরে নৌকা ভাড়া করলাম ১ দিনের জন্য ১৬০০ টাকা। এখানে বলা প্রয়োজন নৌকা ঘাটে হরেক রকম নৌকা পাওয়া যায়। ছোট বড় মাঝারি যার যেমন প্রয়োজন। তাহিরপুর থেকে বাজার করে নৌকায় উঠে যাই আমরা। তারপর আরকি। সারাদিন নৌকায় ঘুরে হাওরের অপরিসীম সৌন্দর্য দেখতে দেখতে কখন সময় পেরিয়ে যাবে টেরই পাবেন না। দুপুরের খাবার সেরে আমরা ৮ জনে ৪ টি বাইক ভাড়া করি শিমুল বাগান, যাদুকাটা নদী, বারেক্কাটিলা দেখবো বলে। প্রতি বাইকে ২০০ করে খরচ হয়। দিনশেষে রাত। তারা ভরা আকাশ থেকে একটা তারা মিটিমিটি করে খসে পড়ার দৃশ্য কতটা নয়নাভিরাম ভ্রমণপিপাসুদের জন্য, তা নিজ চোখে না দেখলে বর্ণনা করা অসম্ভব। ভরা পূর্ণিমার আলোয়, মাঝির হাতের রান্নার সুবাস, লেকের স্তব্ধতা আর আপন মানুষগুলোর সাথে আড্ডা মারতে মারতে বা গলা ছেড়ে গান গাইতে গাইতে আপনার সময়টা কেমন যাবে ভেবে দেখুন। ভাবতেই শিহরিত হবেন। সূর্যোদয় নাকি সূর্যাস্ত কোনটা বেশি সুন্দর ছিল টা ভাবতে ভাবতেই আমাদের টাঙ্গুয়ার হাওরে কাটানো সময় শেষ হয়ে যায়। কত তাড়াতাড়ি চলে গেছে একটা দিন, তবে তার রেশ যাবেনা কোনোদিন। পরদিন সকালে সুনামগঞ্জে হাসন রাজার মিউজিয়াম দেখা শেষে আমরা আবার এনার বাসে করে ঢাকায় ফেরত চলে আসি।

ঢাকার বাইরে স্বল্প খরচে একদিন ঘুরার মত এর চেয়ে ভালো জায়গা কোনটি আমার জানা নেই। বোনাস হিসেবে শীতকালে তো অতিথি পাখি দেখার সুযোগও রয়েছে।

ভিডিওটার ব্যাপারে বলি, ভিডিওটিতে আমাদের যাত্রার কিছু সুন্দর মুহূর্ত উপস্থাপন করা হয়েছে। আশা করি এটা দেখে আপনাদের টাঙ্গুয়ার হাওর যাবার বাসনা আরো তীব্র হবে।

Pst Copied From:

Tanvir Ahmed to Travelers of Bangladesh (ToB)
Share:

Leave a Comment

Shares
error: Content is protected !! --vromonkari.com