হাজারিখিল গেম লাইফ সেংচুয়ারি

If travelling was free,you’d never see me again 😊
আমি বলি নাই,আমার এক বড় ভাই Mizan Rana বলছেন। 😜
আসলেই কল্পনা করা যাই না,আল্লাহ যে এতো সুন্দর সুন্দর জায়গা বানাইছেন।
বান্দরবন,সুন্দরবন,সিলেট এর মিশ্রণে এক অদ্ভুত হাজারিখিল 😊
যদি ট্রাভেলিং টা ফ্রি হতো,তাহলে প্রতিদিন এখানে চলে আসতাম।
যাক আসল কথাই আসি।
এলাকার বড়ভাই,বন্ধুবান্ধব মিলে অনেকদিন ধরে প্ল্যান করলাম ১দিন এর ট্যুর দিবো।
প্ল্যান করলাম ঠিক,কিন্তু প্লেস ঠিক করতে পারলাম না।
এমন সময় মামুন ভাই এর পোস্ট পাইলাম।
উনি যে ছবি দিলেন, ছবি দেখার সাথে সাথে সবাই একপায়ে খাড়া, সবাই রাজি।
যে এখানেই যাবো।যেভাবেই হোক,এখানেই যাবো।
তো আমরা সবাই মিলে ঠিক করলাম ১৮ তারিখ যাবো।
প্রথমে আমাদের ট্যুর এর সদস্য সংখ্যা ছিলো প্রাই ২১ জন।
তা কমতে কমতে ১৫জন হলো।
প্রত্যেক ট্যুর এই তা হয়, প্রথমে অনেকজন থাকে।কিন্তু যাওয়ার টাইমে কয়েকজনযেতে পারে না।
আসলে আল্লাহ তাদেরকে এই ট্যুর এর জন্য কবুল করে নাই😂
তো আমরা ১৫জন মিলে সকাল ৭টার দিকে হাজারিখিল এর উদ্দেশ্যে রাওনা দিলাম।
প্রথমে অক্সিজেন গেলাম,ওখান থেকে বাস করে জনপ্রতি ৪০টাকা করে বিবিরহাট, ফটিকছড়ি তে নামলাম।আসলে আমরা ২৫টাকা করে বাসের ছাদে গিয়েছিলাম।ছাঁদে সবাই মিলে গান গাওয়ার মজাই আলাদা।যাক
ওখানে সকালের ব্রেকফাস্ট টা সেরে নিলাম।তারপর জনপ্রতি ৩০টাকা করে লোকাল সিএনজি করে হাজারিখিল ফরেস্ট অফিস পোঁছালাম।
এবার আসল খেলা শুরু।গাইড মান্নান ভাই (01815382431)এর সাথে কথা হলো।ওনার সাথে দরদাম মিললো না।তাই ওনাকে বিদাই করে দিলাম।আপনারা চাইলে নিতে পারেন।
ফরেস্ট অফিস এর শাহাদাত ভাই এর সাথে কথা বললাম।উনি আমাদের রাস্তা দেখাই দিলেন।
প্রথমেই গিরিপথ এর উদ্দেশ্যে রাওনা দিলাম।
বাপরে, বনজঙ্গল যে এতো ভয়ানক হবে কে জানতো?😁এক অদ্ভুত পরিস্থিতির মাঝে পরে গেলাম।
কয়েকজন তো ব্যাক দিতে চাইছে।😂 হাটতে হাটতে কিছুুদুর যাওয়ার পর গাইড শশী কুমার ভাই কে (01882820226) পাইলাম। তারপর গিড়িপথ,ঝড়না,৯০ডিগ্রি খাড়া পাহাড় সব কিছু দেখে নিলাম।প্রাই ৮ঘন্টা ট্রেকিং করলাম। ঝড়নার দিকে পাতার ভিতরে সাঁপটা দেখার পর সবাই যে চিৎকার দিলো, চিৎকার এর ফিল টাই অন্যরকম ছিলো😜
আার গিড়িপথ এর কথা কি বলবো,এতো সুন্দর গিড়িপথ আমার লাইফে কখনো দেখি নাই।৯০ডিগ্রী খাড়া পাহার এর কথা নাই বল্লাম।চা বাগান টাও দেখার মতো ছিলো।দিনশেষে সবাই মিলে পুকুরে গোসল করার মজাটাও আলাদা 😍
আার যারা যেতে চান, তাদেরকে,বলছি,খালি হাতে ট্রেকিং এ যাবেন না। হালকা পাতলা খাবার নিয়ে যাবেন।যদি দুপুর এর খাবার খেতে চান,যাওয়ার আগে হাজারিখিল বাজারে অর্ডার দিয়ে যাবেন।কারন ওখানে সবসময় খাবার থাকে না।
যেভাবে যাবেন- ঢাকা-ফটিকছড়ি বিবিরহাট-হাজারিখিল ফরেস্ট।।
চট্টগ্রাম থেকে যেভাবে যাবেন- অক্সিজেন -ফটিকছড়ি বিবিরহাট। বাসের সিট এ ৪০,ছাদে ২৫. বিবিরহাট-হাজারিখিল ৩৫ টাকা।
খরচ জনপ্রতি -৩০০টাকা চট্টগ্রাম থেকে।।
আর একটি কথা,গাইড কে বেশি থেকে বেশি ৪০০টাকা দিবেন তার বেশি দেবেন না।দুপুরের খাবার আমাদের সাথে সহ ৩০০টাকা দিয়েছিলাম ।এই প্রথম রিভিউ দিলাম,ভুল হলে ক্ষমা করবেন,না করলে নাই 😂😁
ধন্যবাদ
একসাথে যদি এতগুলো প্লেস দেখতে চান,তাইলে এখনি চলে যান হাজারিখিল। 😃
হ্যাপি ট্রাভেলিং 

Share:

Leave a Comment

Shares
error: Content is protected !! --vromonkari.com