১ দিনের সীতাকুণ্ড ও গুলিয়াখালি টুর সাথে বাশবাড়িয়া ও যেতে পারেন

৩ বন্ধু হঠাৎ প্লান করে ফেললাম যে ৪ তারিখ রাতে সীতাকুণ্ড থেকে ঘুড়ে আসবো যে কথা সে কাজ, ৪ তারিখ রাতে আমরা ৪৮০ টাকা দিয়ে ইউনিক বাস দিয়ে চলে গেলাম সীতাকুণ্ডে, রাত ৩ টা বাজে আমরা পৌছে গেলাম সীতাকুণ্ডের পৌর সদর,পুলিশ সেটশনে সেখান থেকে ১ মিনিট হাটলেই হোটেল পাওয়া যাবে। বাকী রাত পার করার জন্য আমরা একটা হোটেলে নিলাম ডাবল বেট ৫০০ টাকা দিয়ে, তারপর সকালের নাস্তা সেড়ে রওনা হলাম চন্দ্রনাথ পাহাড়ের উদ্দেশ্য, হোটেল থেকে পাহাড়ের যাওয়ার ভাড়া ২০ টাকা করে,কিন্তু আমরা ৩ জন সিএনজি রিজার্ভ করে নিলাম ৮০ টাকা দিয়ে,পরে ১০ টাকা করে ৩ টা বাশ কিনে নিলাম, ১ঘনটা ২০ মিনিটে পাহাড়ে উঠে গেলাম, সব মিলিয়ে ৩ থেকে সাড়ে ৩ ঘন্টায় পাহাড়ে উঠা,নামা ছবি তুলে সব শেষ করলাম,তারপর সাড়ে ১২ টায় হোটেলে পৌছে রেস্ট নিয়ে দুপুর ২ঃ৩০ এ গুলিয়াখালির উদেশ্য রওনা হলাম,সিএনজি রিজার্ভ করে নিলাম ১৩০ টাকা দিয়ে সেখানে ছবি তুলে কিছু সময় ঘুরে ৫ টা বাজে সীতাকুণ্ডে এসে ঢাকার বাসে টিকিট কিটে নিলাম ৬ টার বাসে বাসার উদদশ্যে রওনা হলাম |

সবশেষে একটাই কথা সীতাকুণ্ডের হোটেল গুলো খুব নিম্নমানের, আমরা সাইমুন হোটেল এ ছিলাম তাদের হোটেল দেখতে মোটামোটি ভালো কিনতু এতে বাজে গন্ধ আসলো যে মনে হলো আগামী ৬ মাস তাদের হোটেলে কোন পর্যটক আসে নাই, আমাদের প্লান ছিলো ২ দিন থাকার কিন্ত এতো বাজে হোটেল দেখে আমরা ১ দিন ঘুড়ে ই চলে আসলাম,আপনারা যদি যান তাহলে নতুন একটা হোটেল হয়েছে সৌদিয়া সেটা থেকে ঘুড়ে আসতে পারেন|

আমাদের সব মিলিয়ে পাহাড় আর গুলিয়াখালি এই ২ জায়গায় ঘুড়ে ১,৫০০ টাকা খরচ হয়েছে|
আপনারা যদি বাশবাড়িয়া ও যেতে চান তাহলে পাহাড় থেকে নেমে যতো তারাতারি পারেন রেস্ট নিয়ে দুপুর ২ টা বাজে বাশবাড়িয়া যেতে পারেন| সেখানে আধা ঘন্টা সময় কাটালে ই যথেষ্ট সেখানে থেকে সাড়ে ৩ টা বাজে গুলিয়াখালি চলে যাবেন, বাশবাড়িয়া থেকে গুলিয়াখালির ভাড়াটা সঠিক যানি না|

পরিশেষে একটাই কথা বলবো কোথাও আমরা যাতে পরিবেশ নস্ট না করি|
Source:Shafiqul Islam Sajal<‎Travelers of Bangladesh (ToB) - ভ্রমন গাইড বাংলাদেশ

Share:

Leave a Comment

Shares
error: Content is protected !! --vromonkari.com