৪০০০ টাকায় সেন্টমার্টিন ঘুরাঘুরি

৩ কাজিন মিলে সেন্টমার্টিন ঘুরে এলাম ২ রাত, ৩ দিন জনপ্রতি মাত্র ৪০০০ টাকায়।

গাবতলি থেকে হানিফ বাসে ভাড়া ৯০০ টাকা টেকনাফ পর্যন্ত।টেকনাফে সকালের নাস্তা ৫০ টাকায়।আমাদের Plan ছিলো যাবো জাহাজে এবং তৃতীয় দিন সকালে ট্রলারে টেকনাফ গিয়ে কক্সবাজার যাবো,ওখানে সারাদিন কাটিয়ে রাতের বাসে ঢাকা।তাই শুধু জাহাজে যাওয়ার টিকিট কাটি ৩২৫ টাকা। সেণ্টমার্টিন পৌঁছাই ১২ টার দিকে।এখান থেকে আমরা Hotel sand shore এ ৪ জনের এক রুম নিলাম ২ রাতের জন্য ১০০০ টাকায়(জনপ্রতি ৩৩৩ টাকা)। এরপর দুপুরের খাবারের জন্য ১০০ টাকার প্যাকেজ নিলাম। ভাত, ডাল, আলু ভর্তা,আর শুটকি মাছের চর্চরি। এরপর একটু রেস্ট নিয়ে বীচে চলে গেলাম,গোসল করে রুমে ফেরত আসলাম। সন্ধ্যায় নাস্তা করে,মুরগীর বারবিকিউ অর্ডার করে চলে গেলাম বিচে। আমাদের পার পারসন ১৫০ টাকা করে লেগেছে। বিচে live টুনামাছ,চিংড়ি,কাকড়া ভাজা খেলাম ৩ জনে,নিলো ২০০ টাকা।রাত ১০টায় BBq খেলাম।খেয়ে আবারও বিচে গেলাম,জোসনা উপভোগ করতে।সেখানে ডাবলসিট ভাড়া করলাম ৫০ টাকা দিয়ে unlimited সময়ের জন্য।পরের দিন সকালে ৫০ টাকায় নাস্তা সেরে পুরো দ্বীপ +ছেঁড়া দ্বীপের উদ্দেশ্যে সাইকেল ভাড়া নিলাম ৩ঘন্টার জন্য ১৫০ টাকা জনপ্রতি।পথে ডাব খেলাম ৫০ টাকার,এক ডাবে ৩ জনের পেট ভরে গেলো।ঘুরে এসে বীচে গোসল করলাম।বীচ থেকে ১:৩০ এর মধ্যে ফিরে এসে আবার দুপুরের খাবার খেলাম ১০০ টাকার প্যাকেজ এ।ফিরলাম হোটেলে।বিকেলে পাশের হালকা নাস্তা করে,সেখান থেকে কক্সবাজার টু ঢাকার টিকেট কাটলাম ৮০০ টাকা দিয়ে,তুবা লাইনে। তারপর এক হোটেল তিনজনের জন্য একটি সামদ্রিক মাছের bbq অর্ডার দিয়ে,চলে গেলাম বিচে,কোরাল হাফ কেজি নিয়েছিলাম ৩০০ টাকা,সাথে পরটা।রাত ১০টায় ফোন দিলো bbq ready.খেয়ে আবার বিচে।পরের দিন সকালে নাস্তা করে,ট্রলারে উঠে পরলাম ২১০ টাকা দিয়ে টিকেট কেটে,ছাড়লো ১০টায়।টেকনাফ পৌছালাম, ১টায় (এমন আস্তে চলে),সেখান থেকে জনপ্রতি ১৫০ টাকায় কক্সবাজারের গাড়ীতে উঠলাম। পথে পুলিশ চেকিং হলো ৬ বার,সারাদিন না খাওয়া+বুঝলাম কক্সবাজারে আর দিন কাটানো হলো না।সন্ধ্যায় পৌছালাম।বার্মিজ মার্কেটে হালকা কেনাকাটা করে, রাত ১৫০ টাকা দিয়ে বিরিয়ানি খেয়ে, বীচে ঘোরাঘুরি করে ১০ টায় ঢাকার বাসে উঠে পরলাম।

 

Share:

Leave a Comment

Shares
error: Content is protected !! --vromonkari.com