নিউ এলিফ্যান্ট রোডের গল্প

 

দিনে চার জেলা ঘুরে আসুন চকচকে বর্ডার রোড ধরে

একসময় মেঘালয় সংলগ্ন রাস্তাটি ছিলো অনেক এবড়ো-খেবড়ো আর কাদাময়। কিন্তু উন্নয়নের জোয়ারে রাস্তা এখন তেলের মত। মাইলের পর মাইল ড্রাইভ করবেন কোন গাড়ি নেই। শুধু মাঝে মাঝে দুয়েকটা টমটম বা অটো। জনবিরল অঞ্চল। মাঝে মাঝে একটা দুইটা জনবসতি। তাছাড়া পুরো পাহাড়ী রাস্তা জঙ্গলে ছাওয়া। পাশেই ভারতের সীমানা। এই অঞ্চল হাতির তথাকথিত উৎপাতের জন্য বিখ্যাত। তবে আমি মনে করি ঐতিহাসিকভাবে হাতিদের চলাচলের রাস্তায় ঘরবাড়ি, কাঁটাতার তুলে বাঁধা সৃষ্টি করে বরং আমরা মানুষরাই হাতিদের উৎপাত করছি।

শুরু করবেন জামালপুরের বক্সিগঞ্জ থেকে। রাস্তাই আপনাকে টেনে নিয়ে যাবে শেরপুরের শ্রীবর্দী, ঝিনাইগাতি, নালিতাবাড়ি। ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট, ধোবাউড়া হয়ে একদম নেত্রকোনার দূর্গাপুর পর্যন্ত। অবশ্য নালিতাবাড়ি আলির মোড়ের পর রাস্তা খারাপ হওয়া শুরু করবে। তাই যারা নিজ গাড়ি বা বাইকে যাবেন তারা নাকুগাঁও স্থলবন্দরের কাছাকাছি এসে ডানদিকে গাড়ি ঘুরিয়ে চলে যেতে পারেন শেরপুর সদরের দিকে।

যা যা দেখবেন:

মধুটিলা, লাউচাপড়া, গজনীসহ তিনটি ইকোপার্ক ও বন।

কোচ, গারোসহ নানা আদিবাসী মানুষ ও তাঁদের জীবনযাত্রা।

সোমেশ্বরী, পাগলা, কর্ণজোরা, মর্শি, ভোগাইসহ আরো অনেক পাহাড়ী নদী।

Post Copied From:Apu Nazrul‎>Travelers of Bangladesh (ToB)

 

Share:

Leave a Comment

Shares
error: Content is protected !! --vromonkari.com