সোনাইছড়ি ঝর্না সীতাকুণ্ড

পাথরের সমারোহ,মাঝখানে সরু পথ,পাহাড়ি গাছের কাঁটা,জোঁক পদে পদে বিপদ,চারিদিকে বিপদসংকুল আর অপার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যের হাতছানি😃😃।। অবশেষে ২ ঘন্টা হাঁটার পর পাওয়া গেল সেই ঝর্নার দেখা। ফিরতি বিকল্প পথে খাড়া পাহাড় এর ঢাল বেয়ে উঠা- নামা।। কিছু সময়ের জন্য হরিয়ে য়াওয়া অন্য জগতে।।😎😎

সীতাকুণ্ডের ট্রেইল গুলোর মধ্যে দূর্গম একটা ট্রেইল সোনাইছড়ি।। খাড়া পাহাড়ের মাঝে চলে গেছে ঝিরি পথ।। কিছু কিছু জায়গা খুবই পিচ্ছিল।। মাঝ পথে পাবেন বাদূরের গুহা।।এতে রয়েছে হাজার হাজার বাদূর।। উপর দিয়ে যাওয়ার সময় দু’একটা পাথর পানিতে মারলে শুনতে পারবেন ডানা ঝাপটানোর শব্দ।। গুহা ১০০ ফুট নিচে।। যা পাহাড়ের দেওয়ালে প্রতিফলিত হয়ে ফিরে আসে কানে।। যেমন দূর্গম তেমন বৈচিত্রময়।। কিছু জায়াগায় রয়েছে গভীর খাদ।।
সোনাইছড়ির জোঁকের আলাদা নাম ডাক আছে।। 😞😞

এডভেঞ্চার লাভারদের জন্য আদর্শ জায়গা ✌✌। রিমেম্বার দ্য নেম ‘সোনাইছরি ঝর্না’।।।

যেভাবে যাবেন:

এ.কে খান থেকে বাস করে হাদিফকির হাট।। বাজার থেকে ৩ মিনিট হাটলে পুলের মাথা, পুলের মাতা থেকে রিক্সা নিয়ে রেল বিট।। এক রিক্সায় ৩ জন বসা যায়।। পুলের মাথা থেকে গাইড নিয়ে হাটা শুরু।।
২ ঘন্টা হাটলেই পেয়ে যাবেন ঝর্না।। জোঁকের ব্যাপারে সতর্ক থাকবেন।। আমাকে ১৩ টা ধরসিল।।।

গাইড মাস্ট নিবেন।।

ফিরে এসে পুলের মাথার সামনেই (আল-জামান) হোটেলে লাঞ্চ করতে পারবেন।।

#খরচ

এ.কে খান টু হাদিফকির হাট = ৫০/-
পুলের মাথা টু রেল বিট জনপ্রতি = ৫/-
লাঞ্চ = ৭০/-
গাইড = ৩০০/-

যত্রতত্র ময়লা না ফেলে, পরিবেশ রক্ষায় অবদান রাখি।।

Source: Mohammad Ataher Ishraq Rafi‎ <Travelers of Bangladesh (ToB)

Share:

Leave a Comment

Shares